Ultimate magazine theme for WordPress.

স্পেনে করোনায় বাংলাদেশি নারীর মৃত্যু

নিউজ ডেস্ক:
স্পেনে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে প্রথমবারের মতো এক বাংলাদেশি নারীর মৃত্যু হয়েছে। তার নাম সৈয়দা জামিলা খাতুন (৭৩)। স্থানীয় সময় ২৩ মে সকাল সাড়ে ১১টায় কাতালোনিয়ার আরনাউ দে ভিলানভা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন থাকা অবস্থায় তিনি মৃত্যুবরণ করেছেন।

সৈয়দা জামিলা খাতুনের বাড়ি বাংলাদেশের ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলায়। এ নিয়ে স্পেনে করোনাভাইরাসে ৪ জন প্রবাসী বাংলাদেশি মৃত্যুবরণ করেছেন।

মৃতের পরিবার সূত্রে জানা যায়, সৈয়দা জামিলা খাতুন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে গত ১৭ দিন ধরে লেইডার আরনাউ দে ভিলানভা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন। আজ সকাল সাড়ে ১১টায় হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ জামিলা খাতুন মৃত্যুবরণ করেছেন বলে তার পরিবারকে জানায়।
মৃত সৈয়দা জামিলা খাতুন কাতালোনিয়া প্রদেশের লেইডায় বসবাস করতেন। মৃত্যুকালে তিনি ৩ ছেলে ও ৪ মেয়ে রেখে গেছেন। ছেলে ৩ জনই স্পেনে বসবাস করছেন।

সৈয়দা জামিলা খাতুনের মেঝ ছেলে সৈয়দ গোলাম মোস্তফা জানান, জরুরি অবস্থার কারণে বাংলাদেশে যেহেতু লাশ প্রেরণ সম্ভব নয়, তাই স্পেনেই তার মায়ের কবরের ব্যবস্থা করার জন্য তারা প্রস্তুতি নিচ্ছেন।

প্রসঙ্গত, স্পেনে স্বস্তিজনকহারে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগী ও মৃতের সংখ্যা কমছে। ইতিমধ্যে জরুরি রাষ্ট্রীয় সতর্কতার বিভিন্ন বিষয় শিথিল করে ৪ ধাপের একটি পরিকল্পনা সরকার ঘোষণা করেছে। এ ধাপগুলো সফলভাবে সম্পন্ন হলে আগামী জুন মাসের শেষের দিকে স্বাভাবিক অবস্থায় স্পেন ফিরে আসবে বলে দেশটির প্রধানমন্ত্রী পেদ্র সানচেজ জানিয়েছেন।

বৈশ্বিক এ মহামারিতে স্পেনে গত ২৬ মার্চ হোসাইন মোহাম্মদ আবুল (৬৭), ৫ এপ্রিল জাকির হক ওরফে আনোয়ার হোসেন (৬৭), ৬ এপ্রিল আব্দুস শহীদ (৫৭) ও আজ ২৩ মে সৈয়দা জামিলা খাতুন (৭৩)- এ ৪ জন প্রবাসী বাংলাদেশি মৃত্যুবরণ করেছেন।

Leave A Reply

Your email address will not be published.