Ultimate magazine theme for WordPress.

রোহিঙ্গা ক্যাম্পে একে অপরের হাতে স্বামী-স্ত্রী-শ্যালিকা খুন

নিউজ ডেস্ক:
কক্সবাজারের উখিয়ার রোহিঙ্গা শিবিরে পারিবারিক কলহের জের ধরে স্বামী-স্ত্রী, শ্যালিকাসহ ৩ জন নিহত হয়েছেন। শুক্রবার বিকেল সাড়ে ৫ টার দিকে উখিয়ার কুতুপালং ক্যাম্পে এ ঘটনা ঘটে। তারা পরস্পর পরস্পরকে ধারালো দা নিয়ে খুনোখুনিতে অংশ নেয় বলে জানা গেছে।

উখিয়া থানার ওসি আহমেদ সনজুর মোরশেদ বলেন, রোহিঙ্গা শিবিরে হত্যাকাণ্ডের ঘটনা শুনেছি। ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে।

জানা গেছে, নিহত তিনজনের দুজন স্বামী-স্ত্রী এবং অপরজন শ্যালিকা। কুতুপালং মেগাক্যাম্পের ২/ইস্ট ক্যাম্পের ডি-৭ ব্লকে এ খুনের ঘটনা ঘটেছে।

নিহত রোহিঙ্গারা হলেন, ওই ক্যাম্পের একই ব্লকের আলী হোসেনের ছেলে নুরুল ইসলাম (৩২), তার স্ত্রী মরিয়ম খাতুন (২৬) ও নুরুল ইসলামের শ্যালিকা হালিমা খাতুন (২২)।

শিবিরের রোহিঙ্গা হেড মাঝি ফরিদ আলম জানান, বেশ কিছুদিন ধরে স্বামী ও স্ত্রীর মধ্যে ঝগড়া-বিবাদ চলে আসছে। তাদের সংসারে তিনটি শিশুসন্তান রয়েছে। স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে ঝগড়া-বিবাদের ব্যাপারে স্থানীয়ভাবে বেশ কয়েকবার বৈঠক হয়েছে। কিন্তু ঘটনার মীমাংসা না হওয়ার পরিণতিস্বরূপ এ খুনের ঘটনা ঘটেছে বলে প্রতিবেশীরা মনে করেন।

কুতুপালং শিবিরের ইনচার্জের দায়িত্বে থাকা উপসচিব মো. রাশেদুল ইসলাম খুনের ঘটনা নিশ্চিত করেন। তিনি বলেন, পারিবারিক কলহের জের ধরে স্বামী-স্ত্রী ও শ্যালিকাসহ তিনজন খুন হয়েছে। মৃতদেহ উদ্ধারে কার্যক্রম চলছে।

Leave A Reply

Your email address will not be published.