Date: August 08, 2022

দৈনিক দেশেরপত্র

collapse
...
Home / জাতীয় / মানবতার কল্যাণে জীবন-সম্পদ উৎসর্গের বিকল্প নেই : হোসাইন মোহাম্মদ সেলিম - দৈনিক দেশেরপত্র - মানবতার কল্যাণে সত্যের প্রকাশ

মানবতার কল্যাণে জীবন-সম্পদ উৎসর্গের বিকল্প নেই : হোসাইন মোহাম্মদ সেলিম

August 05, 2022 11:22:55 PM  
মানবতার কল্যাণে জীবন-সম্পদ উৎসর্গের বিকল্প নেই : হোসাইন মোহাম্মদ সেলিম

নিজস্ব সংবাদদাতা:
হেযবুত তওহীদের এমাম হোসাইন মোহাম্মদ সেলিম বলেছেন, পৃথিবীতে শান্তি প্রতিষ্ঠা ও সমগ্র মানবজাতির কল্যাণের জন্য কিছু মানুষের জীবন-সম্পদ সম্পূর্ণরূপে উৎসর্গ করে আল্লাহর দেওয়া জীবনব্যবস্থা প্রতিষ্ঠা করতে হবে। মানবতার কল্যাণে জীবন-সম্পদ উৎসর্গ করার কোন বিকল্প নেই। শুক্রবার রাজধানীর গেণ্ডারিয়ায় মেয়র মোহাম্মদ সাঈদ খোকন কমিউনিটি সেন্টারে অনুষ্ঠিত ঈদ পুনর্মিলনী ও আলোচনা সভায় তিনি এ কথা বলেন।

ঢাকা মহানগর হেযবুত তওহীদের উদ্যোগে আয়োজিত এ অনুষ্ঠান পবিত্র কোরআন থেকে তেলাওয়াত এর মধ্য দিয়ে পূর্ব নির্ধারিত সময় সকাল সাড়ে ৯টায় আরম্ভ হয়। প্রথমে কয়েকজন জেলা আমির এবং বিভাগীয় আমির শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন। লাল সোনালী রঙের প্রিন্টেড পাঞ্জাবি পরিহিত, অসম্ভব আত্মবিশ্বাসী, পর্বত সমান ব্যক্তিত্বের অধিকারী হেযবুত তওহীদের এমাম হোসাইন মোহাম্মদ সেলিম সকাল সাড়ে দশটায় অনুষ্ঠানস্থলে পৌঁছলে উপস্থিত কর্মীদের সমস্বর ‘মাননীয় এমামের আগমন, শুভেচ্ছা স্বাগতম’ স্লোগানে পুরো এলাকা মুখরিত হয়ে ওঠে। অনুষ্ঠানের সভাপতি ঢাকা বিভাগ হেযবুত তওহীদের আমির ডা. মাহবুব আলম মাহফুজ হেযবুত তওহীদের এমামকে প্রবেশদ্বারে স্বাগত জানান।

হেযবুত তওহীদের এমাম মঞ্চে আরোহণ করলে উপস্থিত সকল নেতাকর্মী দাঁড়িয়ে স্যালুটের মাধ্যমে অভিবাদন জানান। অভিবাদন গ্রহণ করে তিনি আসন গ্রহণ করেন। এসময় তাঁকে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানান অনুষ্ঠানের সভাপতি ডা. মাহবুব আলম মাহফুজ ও কেন্দ্রীয় কমিটির গণমাধ্যম সম্পাদক এসএম সামসুল হুদা, সাহিত্য সম্পাদক রিয়াদুল হাসান। এর পূর্বে আসন গ্রহণ করেন কেন্দ্রীয় কমিটির নারী এবং শিল্প ও বাণিজ্য বিষয়ক সম্পাদক রুফায়দাহ পন্নী, তাকে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানান নারী উপ-কমিটির সদস্যরা। এছাড়াও হেযবুত তওহীদের উপদেষ্টামণ্ডলীর প্রধান ও দপ্তর সম্পাদক খাদিজা খাতুন দুপুর একটায় পৌঁছালে হেযবুত তওহীদের নারী বিভাগের পক্ষ থেকে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানানো হয়।

অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন আপন শিশু বিকাশ ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান ডা সুলতানা রাজিয়া, হেযবুত তওহীদের কেন্দ্রীয় কমিটির গণমাধ্যম সম্পাদক এস এম সামসুল হুদা, সাহিত্য সম্পাদক রিয়াদুল হাসান, আন্তঃধর্মীয় যোগাযোগ সম্পাদক হুমায়ুন কবির, শিক্ষা ও প্রশিক্ষণ বিষয়ক সম্পাদক সাইফুর রহমান, কৃষি সম্পাদক মোরশেদ আলম খান, নারী উপ-কমিটির সদস্য আয়েশা সিদ্দীকা, শারমিন সুলতানা, তাসলিমা ইসলাম। এছাড়াও অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বরিশাল বিভাগীয় আমির আল আমিন সবুজ, ময়মনসিংহ বিভাগীয় আমির এনামুল হক বাপ্পা, সিলেট বিভাগীয় আমির মো. আলী হোসেন, খুলনা-১ বিভাগীয় আমির শামসুজ্জামান মিলনসহ জেলা ও থানা পর্যায়ের বিভিন্ন আমীরগণ।

অনুষ্ঠানে শুভেচ্ছা বক্তব্য দেন, ঢাকা মহানগর হেযবুত তওহীদের সাধারণ সম্পাদক ফরিদ উদ্দিন রাব্বানী। এরপর ঢাকা বিভাগ হেযবুত তওহীদের আমির সভাপতির বক্তব্য প্রদান করেন। সভাপতির বক্তব্যের পর আসে সেই মাহেন্দ্রক্ষণ, যার জন্য দীর্ঘক্ষণ ধরে অপেক্ষায় ছিলেন উপস্থিত নেতাকর্মীগণ। সকলের দীর্ঘ অপেক্ষার অবসান ঘটিয়ে সকাল দশটা ৫৫ মিনিটে হেযবুত তওহীদের এমাম তার মূল্যবান বক্তব্য প্রদান শুরু করেন। শুরুতেই তিনি হেযবুত তওহীদের ঢাকা বিভাগের কর্মীদের প্রতি বিভিন্ন দিক-নির্দেশনামূলক বক্তব্য দেন। তাদের ঈমান-আকিদা ও পাঁচ দফা কর্মসূচির বিষয়গুলো ভালোভাবে ব্যাখ্যা করেন। বর্তমান সমাজ ব্যবস্থার নানা অসঙ্গতি তুলে ধরে তিনি বলেন, আল্লাহর দেওয়া বিধান না মানার ফলে আজ সমাজের রন্ধ্রে রান্ধ্রে দুর্নীতি, অবিচার, অন্যায়, জুলুম বৃদ্ধি পেয়েছে। এসব থেকে পরিত্রাণের জন্য সকলকে মানবতার কল্যাণে নিজেকে উৎসর্গ করার আহ্বান জানান। আল্লাহর দেওয়া জীবনব্যবস্থার বিপরীতে মানুষ আজ পর্যন্ত যত তন্ত্র-মন্ত্র, বাদ-মতবাদ নিজেরা তৈরি করেছে, সবগুলোই অনিবার্যভাবে মানুষে মানুষে ভেদাভেদ ও হিংসা-বিদ্বেষকে উস্কে দিয়েছে। এ অবস্থা থেকে উত্তরণে জাতিকে ঐক্যবদ্ধ করার কাজে সকলকে স্বত:স্ফূর্তভাবে অংশগ্রহণ করার আহ্বান জানান।
অনুষ্ঠানস্থলে একাধিক প্রজেক্টরের মাধ্যমে হেযবুত তওহীদের বিভিন্ন কার্যক্রমের ডকুমেন্টারি প্রদর্শন করা হয়।

নোয়াখালীতে অবস্থিত শহীদী জামে মসজিদের উপর একটি প্রামান্যচিত্র প্রদর্শন করা হয়। এছাড়াও ২০২২ সালে দলের বিভিন্ন কার্যক্রমে উল্লেখযোগ্য অবদান রাখায় ৩৩ জনকে পুরষ্কৃত করা হয়। অনুষ্ঠানের এক পর্যায়ে মাটি মিউজিকের সৌজন্যে এক মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পরিবেশন করা হয়।