Ultimate magazine theme for WordPress.

তোরেসের হ্যাটট্রিকে ম্যানসিটির দুর্দান্ত জয়

খেলারপত্র ডেস্ক:
দুই দুইবার পিছিয়ে পড়েও সাত গোলের ম্যাচে দুর্দান্ত এক জয় পেয়েছে ম্যানচেস্টার সিটি। লিগ শিরোপা নিশ্চিত হওয়ায় ম্যাচের আগে ৪-৩ ব্যবধানে নিউক্যাসেল ইউনাইটেডকে হারিয়েছে তারা। রোমাঞ্চের এই জয়ে ম্যানসিটির পক্ষ হ্যাটট্রিক করেন তোরেস।
শুক্রবার রাতে খেলার শুরু থেকে পাল্টা আক্রমণ নির্ভর ফুটবলে পেপ গার্দিওলার দলের বিপক্ষে দারুণ উত্তাপ তৈরি করেছিল নিউক্যাসেল। কিন্তু তোরেসের হ্যাটট্রিকে লিগে প্রতিপক্ষের মাঠে টানা দ্বাদশ জয় তুলে রেকর্ড গড়ে সিটি।
লিগে প্রতিপক্ষের মাঠে সিটির এটি টানা দ্বাদশ জয়, নতুন রেকর্ড। অ্যাওয়ে ম্যাচে টানা জয়ের আগের রেকর্ডটি ২০০৮ সালে প্রথম গড়েছিল চেলসি। ২০১৭ সালে সিটি সেটি স্পর্শ করলেও ভাঙতে পারেনি। এ মাসের প্রথম দিন ক্রিস্টাল প্যালেসের বিপক্ষে জিতে আবারও সেটি স্পর্শ করে তারা এবং এবার গড়ল নতুন কীর্তি।
প্রতিপক্ষের ‘গার্ড অব অনার’ নিয়ে মাঠে নামা সিটি শুরু থেকে বল দখলের পাশাপাশি আক্রমণে আধিপত্য বিস্তার করে। তবে, খেলার ধারার বিপরীতে ২৫তম মিনিটে গোল খেয়ে বসে দলটি। এমিল ক্রাফতের গোলে এগিয়ে যায় নিউক্যাসেল। পরে সমতায় ফিরতে খুব বেশি সময় নেয়নি লিগ চ্যাম্পিয়নরা।
৩৯ মিনিটের মাথায় ম্যানসিটির হয়ে গোলের দেখা পান জোয়াও কানসালো। খানিক পরেই ১-২ ব্যবধানে এগিয়ে যায় সিটি। ৩ মিনিট পর ম্যাচে নিজের প্রথম গোলের দেখা পান তোরেস।
পাল্টা আক্রমণে মাঝেমধ্যেই ভীতি ছড়ানো নিউক্যাসল সমতা টানে বিরতির আগে। জোলিনটন ডি-বক্সে ফাউলের শিকার হওয়ায় পেনাল্টিটি পায় তারা। স্পট কিক থেকে গোল করতে ভুল করেননি ব্রাজিলিয়ান ফরোয়ার্ড। ২-২ সমতায় বিরতিতে যায় দুদল।
বল দখলের লড়াইয়ে সিটি এগিয়ে থাকলেও দ্বিতীয়ার্ধে ফিরে লিড পায় নিউক্যাসেল। ৬২ মিনিটে জোসেফ উইলক গোল করে এগিয়ে নেন দলকে। তবে পরের চার মিনিটে আরও দুটি গোল করেন তিনি। বাকি সময় অবশ্য আর কোনে গোল হয়নি। তাতে ৪-৩ ব্যবধানের জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে চ্যাম্পিয়ন সিটি।

Leave A Reply

Your email address will not be published.