Date: September 26, 2022

দৈনিক দেশেরপত্র

collapse
...
Home / সারাদেশ / ঢাকা / ঢাবির ভর্তিযুদ্ধে ৫৫ বছর বয়সী বেলায়েত, অবিভাবক ছেলে! - দৈনিক দেশেরপত্র - মানবতার কল্যাণে সত্যের প্রকাশ

ঢাবির ভর্তিযুদ্ধে ৫৫ বছর বয়সী বেলায়েত, অবিভাবক ছেলে!

June 10, 2022 01:44:55 PM  
ঢাবির ভর্তিযুদ্ধে ৫৫ বছর বয়সী বেলায়েত, অবিভাবক ছেলে!

শ্রীপুর সংবাদদাতা, গাজীপুর:
৫৫ বছরের বেলায়েত শেখ! শিক্ষার কোনো বয়স নেই। কথাটি সত্য প্রমাণ করলেন বেলায়েত।অল্প বয়সেই সংসারের হাল ধরতে হয় তাকে। স্বপ্ন ছিল ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে উচ্চ ডিগ্রি নেওয়ার। পাঁচ ভাইবোন আর তিন সন্তানকে পড়িয়ে অভাবের সংসারে নিজে পড়ার আর সুযোগ হয়নি। সেই আক্ষেপ থেকেই ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ার সিদ্ধান্ত নেন বেলায়েত।

৫৪ বছর বয়সে এইচএসসি পাস করে ৫৫ বছর বয়সে ঢাবির ভর্তি পরীক্ষার আসনে বসবেন তিনি। আত্মপ্রত্যয়ী বেলায়েত শেখ গাজীপুর জেলার শ্রীপুর উপজেলার কেওয়া পশ্চিম খন্ড গ্রামের বাসিন্দা।

বেলায়েত শেখ জানান, ১৯৬৮ সালে তার জন্ম। ছোটবেলা থেকেই স্বপ্ন ছিল ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে উচ্চ ডিগ্রি নেওয়ার। অভাবের সংসারে বাবার অসুস্থতার কারণে ১৯৮৩ সালে এসএসসি পরীক্ষা দিতে পারেননি। অসুস্থ মা-বাবা ও ভাইবোনদের ভরণপোষণ করতে সংসারের হাল ধরেন তিনি। জীবন চালাতে দিনমজুর, হোটেল বয়, গেরেজের টুকিটাকি কাজ করেছেন। পরে ছোট একটি মোটর মেরামতের ওয়ার্কশপের আয় দিয়েই চলতো সংসার। বাবা-মা’র সেবার জন্য অল্প বয়সেই বিয়ে করেন। সংসার জীবনে তিন সন্তানের বাবা তিনি।

বেলায়েত সংসারের ঘানি টেনেও আরও দুবার এসএসসি পরীক্ষার প্রস্ততি নেন। অভাবের কারণে পরীক্ষা দেওয়া হয়নি। তার আক্ষেপ, ৫ ভাইবোন ও ৩ সন্তানের কেউই বিশ্ববিদ্যালয়ের গন্ডি পর্যন্ত পৌঁছতে পারেননি। সেই থেকেই পুনরায় লেখাপড়া শুরু করেন তিনি। দীর্ঘ তিন যুগ পর ২০১৯ সালে কারিগরি শাখা থেকে জিপিএ ৪.৪৩ পেয়ে এসএসসি এবং ২০২১ সালে ছোট ছেলের সঙ্গে জিপিএ ৪.৫৮ পেয়ে এইচএসসি পাশ করেন তিনি। ঢাবির ভর্তি পরীক্ষায় তার অভিভাবক হিসেবে রয়েছেন তার ছেলে।

এরআগে বাবা-ছেলের একসঙ্গে পাসের খবর এলাকায় ব্যাপক আলোড়ন সৃষ্টি করে। প্রচার হয় সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে। গণমাধ্যমেও সংবাদের শিরোনাম হন তিনি।

বেলায়েত বলেন, ‘এখন আমার বয়স হয়েছে। নিজেকে বয়ষ্ক ভাবলে দূর্বল হয়ে পড়ি। নিজকে বয়ষ্ক ভাবি না, তরুণ মনে করি। লেখাপড়া মনে থাকে না। বারবার লিখে আয়ত্ত করি।’

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ার স্বপ্ন নিয়ে ভর্তি পরীক্ষার প্রস্তুতি নিচ্ছেন। নিজেকে যোগ্য করতে কোচিং করছেন সাইফুরসের এর মাওনা শাখায়। তার ইচ্ছা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে গণসংযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগে উচ্চ ডিগ্রি লাভ করা। আগামী ১১ জুন ঢাবির ‘ঘ’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষায় অংশ নেবেন বেলায়েত। তিনি দীর্ঘদিন দৈনিক বজ্রশক্তি,  অনলাইন টেলিভিশন জেটিভি এবং দৈনিক করতোয়া পত্রিকার শ্রীপুর প্রতিনিধি হিসাবে কাজ করে আসছেন।