Date: December 02, 2022

দৈনিক দেশেরপত্র

collapse
...
Home / রাজনীতি / আ. লীগ সম্পর্কে মিথ্যা খবর দেওয়া থেকে বিরত থাকুন, সংবাদিকদের কাদের - দৈনিক দেশেরপত্র - মানবতার কল্যাণে সত্যের প্রকাশ

আ. লীগ সম্পর্কে মিথ্যা খবর দেওয়া থেকে বিরত থাকুন, সংবাদিকদের কাদের

November 15, 2022 07:49:42 PM  
আ. লীগ সম্পর্কে মিথ্যা খবর দেওয়া থেকে বিরত থাকুন, সংবাদিকদের কাদের

স্টাফ রিপোর্টার:
দেশের গণমাধ্যমকর্মীদের আওয়ামী লীগ সম্পর্কে মিথ্যা খবর দেওয়া থেকে বিরত থাকার অনুরোধ জানিয়েছেন দলটির সাধারণ সম্পাদক ও সড়ক পরিবহন সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। তিনি বলেন, আমাদের (আওয়ামী লীগ) সম্পর্কে মিথ্যা খবর দেওয়া থেকে বিরত থাকবেন।
এটা আমার অনুরোধ। সুনামগঞ্জে দলীয় সম্মেলনে সংঘর্ষে একজনের মৃত্যুর সংবাদ প্রসঙ্গ টেনে তিনি বলেন, ইটস এ ফলস (মিথ্যা), এটা ভুল। এখন আপনারা খবর নিতে পারেন। কী কারণে লোকটার মৃত্যু হয়েছে। মঙ্গলবার সকালে রাজধানীর বনানীতে বিআরটিএ প্রধান কার্যালয়ে জাতীয় সড়ক নিরাপত্তা কাউন্সিলের ২৯ তম সভা শেষে সাংবাদিকদের উদেশ্যে তিনি এসব কথা বলেন। গত সোমবার সুনামগঞ্জের দিরাই উপজেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলনস্থলে দলের বিবদমান দুই পক্ষের সংঘর্ষে হয়। এতে ঢিলের আঘাতে আজমল হোসেন চৌধুরী ওরফে আরমান (৩৫) নামে একজন মারা গেছেন। আহত হয়েছেন অর্ধশত ব্যক্তি। তবে, সংঘর্ষ চলাকালে নিহত ব্যক্তি সম্মেলনের ধারে কাছে ছিল না দাবি করে কাদের বলেন, সে বাড়িতে ছিল। বাড়ি থেকে তাকে হাসপাতালে নেওয়া হয়েছে। সে মৃত। এটাকে এখন বলা হচ্ছে আমাদের সম্মেলনে মারামারি হয়ে একজন মারা গেছে।
আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, আমাদের একটা উপজেলা সম্মেলনকে কেন্দ্র করে ওখানে ছোটখাটো একটা ঘটনা ঘটেছিল। কিন্তু পরবর্তীতে সম্মেলন সুন্দরভাবে শেষ হয়েছিল। সকালে পত্র-পত্রিকায় দেখলাম ১ জন মারা গেছে। মৃত্যু হওয়ার সুবাধে প্রথম পাতায় উঠে আসছে। সম্মেলনের আশপাশে কোথাও এধরনের ঘটনা ঘটেনি। আমি পুলিশ সুপারের সঙ্গে কথা বলছি। এভাবে সম্মেলন নিয়ে নিউজ করা...। তিনি বলেন, একটা ঘটনা ঘটেছে। একটা লোক দুবাই থাকে। সে দেশে এসেছে। সে নিজের বাড়িতে ছিল। বাড়ি ওখান থেকে অনেক দূরে। সম্মেলনে ঘটনা ঘটেছে দুপুর ১ টায়। তিনটা বাজে ওই ব্যক্তিকে তার পরিবার হাসপাতালে নিয়ে গেছে। সে স্ট্রোক করে মারা গেছে, এর সঙ্গে সম্মেলনের কোনো রিলেশন নেই। কোনোভাবেই সম্মেলনের সঙ্গে এ ঘটনা যুক্ত না।
সাংবাদিকদের বন্ধু আখ্যায়িত করে তাদের উদ্দেশ্যে ওবায়দুল কাদের বলেন, এভাবে যদি নিউজ করেন, পুরোপুরি অবহিত না হয়ে...। যদি কেউ মারা যায় সম্মেলনে সেক্ষেত্রে তো প্রমাণ থাকবে। স্ট্রোক করেছে আপনারা (সাংবাদিক) খবর নেন। সম্প্রতি ছয়টি জেলা সম্মেলনে অংশ নেওয়ার কথা জানিয়ে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, কোথায় কোন সম্মেলনে আমাদের এ ধরনের গোলমাল হয়েছে? একটা জেলা সম্মেলন, কুমিল্লায় যেটা হয়েছে সেটা সম্মেলন থেকে অনেক দূরে। ওই চৌরাস্তার মোড়। তাওতো সেখানে মারামারিও হয়নি। কিছুই হয়নি। পটকা পাটকা ফুটাইছে। তাও সম্মেলন ভেন্যু থেকে দূরে। এগুলো আপনারা একটু খেয়াল রাখবেন।
বিরোধী দল বিএনপির বিভাগীয় সমাবেশের প্রতি ইঙ্গিত দিয়ে এই আওয়ামী লীগ নেতা বলেন, বিরোধী দল হলে চারদিন আগে আসতেছে, লঞ্চে আসতেছে, নৌকায় আসতেছে হেঁটে আসতেছে। দেন এটা আপনাদের ইচ্ছা। আমাদের এগুলো বারণ নেই। এগুলো আপনাদের ব্যাপার। পত্রিকার পলিসির ব্যাপার। কিন্তু আমাদের সম্পর্কে মিথ্যা খবর দেওয়া থেকে বিরত থাকবেন। এটা আমার অনুরোধ। ইটস এ ফলস (মিথ্যা)। এটা ভুল। এখন আপনারা খবর নিতে পারেন কী কারণে লোকটার মৃত্যু হয়েছে। এখন থেকে ঘরে বসে ড্রাইভিং লাইসেন্স পাওয়া যাবে বলে জানিয়ে তিনি বলেন, আগামীকাল (আজ বুধবার) থেকে যারা ড্রাইভিং লাইসেন্সের জন্য আবেদন করবেন তারা ঘরে বসেই তা করতে পারবেন।
ওবায়দুল কাদের বলেন, আবেদনকারীকে শুধুমাত্র একবার পরী¶ার জন্য বিআরটিএর কার্যালয়ে আসতে হবে। বিশ্ব ব্যাংকের সঙ্গে ৪ হাজার ৮০ কোটি টাকার একটি লোনের বিষয়ে আলোচনা হয়েছে জানিয়ে সড়ক পরিবহনমন্ত্রী বলেন, সড়কে নিরাপত্তার বিষয়ে আমরা একটি প্রকল্প দেখছি বিশ্ব ব্যাংকের আর্থিক সহায়তায়। এই প্রকল্পের ডিডিপিও প্রস্তুত। শিগগিরই একনেক সভায় যাবে। একনেকে আসলে তারপর আমরা ইমপ্লিমেন্টে যাব। কারণ, সড়ক নিরাপত্তা আমাদের খুবই প্রয়োজন। সারাদেশের মহাসড়কে মোটরসাইকেল নিষিদ্ধের প্রস্তাব নাকচ করে দিয়েছেন বলে জানান সেতুমন্ত্রী।
তিনি বলেন, মহাসড়কে মোটরসাইকেল নিষিদ্ধ করার চেয়ে নিয়ন্ত্রণটা কীভাবে করা যায়, আমরা সে ব্যাপারে গুরুত্ব বেশি দিচ্ছি। ওবায়দুল কাদের বলেন, এ জনবহুল দেশে মোটরসাইকেল বহু বেকারের কর্মসংস্থান। নীতিমালা করার কথা আমরা ইতোমধ্যে বলেছি। নীতিমালা হচ্ছে। ওবায়দুল কাদের বলেন, হাইকোর্টের একটি নির্দেশনা আছে মহাসড়কগুলোতে তিন চাকার যানবাহন চলাচল করতে পারবে না, তাই পাঁচ মহাসড়ক আমরা নিবিড়ভাবে পর্যবেক্ষণ করব। তিনি বলেন, আমরা ঠিক করেছি ঢাকা-আরিচা, ঢাকা-ময়মনসিংহ, ঢাকা-টাঙ্গাইল, ঢাকা- সিলেট এবং ঢাকা-চট্টগ্রাম এ মহাসড়কগুলোতে ব্যাটারি চালিত অটোরিকশা ও ইজিবাইক চলাচল আমরা নিবিড়ভাবে পর্যবেক্ষণ করব। হাইকোর্টের নির্দেশের পরিপ্রেক্ষিতে ২০১৫ সালে দেশের গুরুত্বপূর্ণ ২২ মহাসড়কে থ্রি হুইলার চলাচল নিষিদ্ধ করেছে সরকার। তবে সেই সিদ্ধান্ত থেকে সরকার অনেকটাই সরে এসেছে। ২২টি মহাসড়কের মধ্যে শুধুমাত্র পাঁচটি মহাসড়ক নিবিড়ভাবে পর্যবেক্ষণ করা হবে।
দেশের বাইশটি মহাসড়ক থাকলেও শুধু পাঁচটিতে কেন পর্যবেক্ষণ করা হবে এ বিষয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, পুলিশ এবং ম্যান পাওয়ার অত বেশি নেই যে সবগুলোতে পর্যবেক্ষণ করবে। আপাতত গুরুত্বপূর্ণ পাঁচটি সড়কে পর্যবেক্ষণ করা হবে। ধীরে ধীরে বাড়বে। এর ওপরে একটা নীতিমালা করা হচ্ছে। অনুষ্ঠানে রেলপথমন্ত্রী নূরুল ইসলাম সুজন, ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মেয়র ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস, আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ও মাদারীপুর-২ আসনের সংসদ সদস্য শাজাহান খান, পুলিশ মহাপরিদর্শক (আইজিপি) চৌধুরী আব্দুল্লাহ আল মামুন ও বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন মালিক সমিতির মহাসচিব খন্দকার এনায়েত উল্লাহ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।